Category:

Monitoring of transactions during all public examinations under Ministry of Education. Ref: PSD Circular Letter No. 01 dated 23-Jan-2020.

January 3rd, 2020 by

ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা
বাংলাদেশে সেবা প্রদানরত সকল মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ও ই-ওয়ালেট সার্ভিস প্রোভাইডার।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিতব্য সকল পাবলিক পরীক্ষা চলাকালীন সংঘটিত লেনদেন মনিটরিং প্রসঙ্গে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিতব্য সকল পাবলিক পরীক্ষা (যেমন: জে.এস.সি, জে.ডি.সি, এস.এস.সি, দাখিল, এইচ.এস.সি, আলীম, ভোকেশনাল, ডিপ্লোমা এবং সমমানের পরীক্ষা) চলাকালীন (পরীক্ষা শুরুর এক সপ্তাহ পূর্ব হতে পরীক্ষা শেষ হওয়ার দিন পর্যন্ত) মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) প্রোভাইডারসমূহ কর্তৃক প্রদত্ত মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস এবং পেমেন্ট সার্ভিসেস প্রোভাইডারসমূহ (পিএসপি) কর্তৃক প্রদত্ত ই-ওয়ালেট সার্ভিস এর মাধ্যমে সংঘটিত ছোট অংকের (দুইশত থেকে দুই হাজার টাকা মূল্যমানের) পৌনঃপুনিক লেনদেন মনিটরিং জোরদারকরণ এবং সন্দেহজনক লেনদেনের বিষয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করার জন্য আপনাদেরকে নির্দেশনা প্রদান করা হলো।

এই নির্দেশনার বিষয়ে নিজ নিজ ডিস্ট্রিবিউটর/সুপার এজেন্ট, এজেন্ট এবং গ্রাহকগণকে সম্যকভাবে অবহিতকরণ এবং নির্দেশনার আলোকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও আপনাদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/psd/jan232020psdl01.pdf

Regarding Guidelines for Prevention of Trade Based Money Laundering. Ref: BFIU Circular No. 24 dated 10-Dec-2019.

December 10th, 2019 by

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা
বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংক

Guidelines for Prevention of
Trade Based Money Laundering জারীকরণ প্রসঙ্গে।

আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে মানিলন্ডারিং, সন্ত্রাসী কার্যে ও ব্যাপক ধ্বংসাতœক অস্ত্র বিস্তারে অর্থায়ন ঝুঁকি মোকবেলায় কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে বাংলাদেশে কার্যরত ব্যাংকসমূহের জন্য “Guidelines for Prevention of Trade Based Money Laundering” শীর্ষক গাইডলাইন্স প্রণয়ন করা হয়েছে যা মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ২৩ (১) (ঘ) ধারা এবং সন্ত্রাস বিরোধী আইন, ২০০৯ এর ১৫(১)(ঘ) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জারী করা হলো।গাইডলাইন্সটি বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েব সাইটের https://www.bb.org.bd/bfiu/bfiu_lawguidelist.php লিংক হতে ডাউনলোড করা যাবে।

২। আলোচ্য গাইডলাইন্সটির আলোকে তফসিলি ব্যাংকসমূহকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ক্ষেত্র, ব্যাপ্তি, গ্রাহক সংখ্যা, প্রকৃতি ইত্যাদি বিবেচনায় নিয়ে গাইডলাইন্স এর তৃতীয় অধ্যায়ে বর্ণিত ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা ও পরিপালন পদ্ধতি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে নিজস্ব গাইডলাইন্স/ম্যানুয়েল প্রণয়নপূর্বক পরিচালনা পর্ষদ বা পরিচালনা পর্ষদের অনুপস্থিতিতে সর্বোচ্চ ব্যবস্থাপনা কমিটির অনুমোদন গ্রহণ করে আগামী ১০ মার্চ, ২০২০ তারিখের মধ্যে এ ইউনিটে দাখিল করতে হবে এবং ০১ জুন, ২০২০ তারিখের মধ্যে উক্ত গাইডলাইন্স/ম্যানুয়েল এর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/aml/dec102019bfiu24.pdf

Regarding Money laundering Prevention Rules 2019. Ref: BFIU Circular Letter No. 01 dated 24-Feb-2019.

February 24th, 2019 by

ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা
সকল রিপোর্ট প্রদানকারী সংস্থা (মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ (সংশোধিত ২০১৫) এর ধারা ২(ব) এ উল্লিখিত), বাংলাদেশ।

মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ বিধিমালা, ২০১৯ প্রসঙ্গে।

মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ (সংশোধিত ২০১৫) এর ২৯ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গত ৩১ জানুয়ারি, ২০১৯ তারিখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয় ২১ নভেম্বর, ২০১৩ তারিখে প্রণীত Money Laundering Prevention Rules, 2013 রহিত করে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ বিধিমালা, ২০১৯ জারী করে যা ১৩ ফেব্রæয়ারি, ২০১৯ তারিখে বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় প্রকাশিত হয়েছে।
০২। আলোচ্য বিধিমালাটি জারী হওয়ায় রিপোর্ট প্রদানকারী সংস্থাসমূহের দায়িত্ব ও কর্তব্য বিস্তৃত হয়েছে। উক্ত বিধিমালার বিধানসমূহ পরিপালন ও সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতিতে আনয়নের সুবিধার্থে বিধিমালাটি বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটের বিএফআইইউ পেইজে আপলোড করা হয়েছে, যা https://www.bb.org.bd/bfiu/bfiu_rules.php ওয়েবলিংকে পাওয়া যাবে।
০৩। এক্ষণে বর্ণিত বিধিমালাটি সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতিতে আনয়ন এবং এর বিধানসমূহের পরিপালন নিশ্চিত করার জন্য আপনাদেরকে অনুরোধ করা হলো।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/aml/feb242019bfiul01.pdf

Instructions regarding Internal Control and Foreign Branches of Subsidiaries of “Financial Institution Group”. Ref: BFIU Circular No. 23 dated 31-Jan-2019.

January 31st, 2019 by

Instructions regarding Exchange of Information among the reporting organizations. Ref: BFIU Circular No. 22 dated 31-Jan-2019.

January 31st, 2019 by

Amendment of Section 9 of BFIU Circular- 19 dated 17/09/2017. Ref: BFIU Circular No. 21 dated 30-Jan-2019.

January 30th, 2019 by

Instructions to be followed by the schedule banks for preserving secrecy of information. Ref: BFIU Circular Letter No. 01 dated 22-Apr-2018.

April 22nd, 2018 by

INSTRUCTIONS TO BE FOLLOWED FOR THE COMPLIANCE OF FREEZING ACCOUNTS OF LISTED INDIVIDUALS OR INSTITUTIONS AND OTHER ISSUES UNDER THE SANCTION LIST OF DIFFERENT RESOLUTIONS OF UNITED NATIONS SECURITY COUNCIL. REF: BFIU CIRCULAR LETTER NO. 01 DATED 11.02.2016.

February 11th, 2016 by

জাতিসংঘ চার্টারের ৭নং অধ্যায়ের আওতায় আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার নিমিত্তে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ কর্তৃক গৃহীত রেজুলুশনের নির্দেশনাসমূহ পরিপালনে অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেরও বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এদিকে সন্ত্রাস বিরোধী আইন, ২০০৯ এর ধারা ১৫(৩), ২০ ও ২০(ক) এর আওতায় জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ কর্তৃক গৃহীত রেজুলুশনের নির্দেশনাসমূহ যথাযথভাবে পরিপালন ও এর আওতায় তালিকাভুক্ত ব্যক্তি অথবা প্রতিষ্ঠানের নামে অথবা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে তাদের নিয়ন্ত্রণাধীন/স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কোন প্রতিষ্ঠানের নামে কোন হিসাব/লেনদেন পরিচালিত হলে তা অবিলম্বে অবরুদ্ধ করার বিধান রয়েছে। আলোচ্য আইনের উক্ত বিধান এবং সন্ত্রাস বিরোধী বিধিমালা, ২০১৩ এর সংশ্লিষ্ট বিধানসমূহ রিপোর্ট প্রদানকারী সংস্থাগুলো কর্তৃক যথাযথভাবে পরিপালনের নিমিত্তে এ ইউনিট হতে সার্কুলার, সার্কুলার লেটার, গাইডলাইন্স জারীপূর্বক সময়ে সময়ে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। উক্ত নির্দেশনাসমূহে ব্যাপক ধ্বংসাত্মক অস্ত্র বিস্তার রোধে গৃহীত রেজুলুশনে রিপাবলিক অব ইরানের বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান অন্তর্ভুক্ত ছিল।

এদিকে গত ২০ জুলাই, ২০১৫ তারিখে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে গৃহীত ২২৩১ নং রেজুলুশন মোতাবেক ইরান Joint Comprehensive Plan of Action (JCPOA) বাস্তবায়ন করায় ১৬ জানুয়ারি, ২০১৬ হতে ইতোপূর্বে ইরান বিষয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের গৃহীত রেজুলুশন নং ১৬৯৬, ১৭৩৭, ১৭৪৭, ১৮০৩, ১৮৩৫, ১৯২৯ ও ২২২৪ নং রেজুলুশনের কার্যকারিতা রহিত হয়েছে।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ কর্তৃক আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার নিমিত্তে গৃহীত রেজুলুশনসমূহের (যে সকল রেজুলুশনে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে) আওতায় তালিকাভুক্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নামের একটি সমন্বিত তালিকা প্রস্তুত করা হয়ে থাকে যা নিয়মিত বিরতিতে পরিবর্তিত/পরিমার্জিত হয়। উক্ত তালিকা সর্বশেষ ১৭ জানুয়ারি, ২০১৬ তারিখে পরিবর্তিত/পরিমার্জিত হয় যা নিম্নবর্ণিত ওয়েবলিংকে পাওয়া যাবেঃ https://www.un.org/sc/suborg/en/sanctions/un-sc-consolidated-list

উপর্যুক্ত বিষয়সমূহ সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের অবগতিতে আনয়ন ও বাস্তবায়নের জন্য আপনাদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

CIRCULATION OF MONEY LAUNDERING PREVENTION (AMENDMENT) ACT, 2015. REF: BFIU CIRCULAR LETTER NO. 06 DATED 09.12.2015.

December 9th, 2015 by

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ কর্তৃক গৃহীত মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ (সংশোধন) আইন, ২০১৫ (২০১৫ সনের ২৫ নং আইন) গত ২৬ নভেম্বর, ২০১৫ তারিখে মহামান্য রাষ্ট্রপতির সম্মতি লাভের মাধ্যমে উক্ত তারিখ হতে কার্যকর হয়েছে। উক্ত আইনটি বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় একই তারিখে প্রকাশ করা হয়েছে। জারীকৃত আইনের বিধানসমূহ পরিপালন ও সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতিতে আনয়নের সুবিধার্থে আইনটি বিএফআইইউ এর ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে, যা https://www.bb.org.bd/bfiu/bfiu_acts.php ওয়েবলিংক হতে ডাউনলোড করা যাবে।

এই আইনের নির্দেশনা পরিপালন নিশ্চিতকরণ ও বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতিতে আনয়নের জন্য আপনাদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

CIRCULATION OF MONEY LAUNDERING PREVENTION RULES, 2013 AND ANTI TERRORISM RULES, 2013. REF: BFIU CIRCULAR LETTER NO. 03 DATED 09.04.2015.

April 9th, 2015 by

মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ২৯ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গত ২১ নভেম্বর, ২০১৩ তারিখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয় মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ বিধিমালা, ২০১৩ জারী করেছে যা গত ২৯ জানুয়ারি, ২০১৪ তারিখে বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় প্রকাশিত হয়েছে।

০২। সন্ত্রাস বিরোধী আইন, ২০০৯ এর ৪৩ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গত ১৩ অক্টোবর, ২০১৩ তারিখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সন্ত্রাস বিরোধী বিধিমালা, ২০১৩ জারী করেছে যা গত ০৯ নভেম্বর, ২০১৩ তারিখে বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় প্রকাশিত হয়েছে।

০৩। আলোচ্য বিধিমালা দু’টি জারী হওয়ায় রিপোর্ট প্রদানকারী সংস্থাসমূহের দায়িত্ব ও কর্তব্য বিস্তৃত হয়েছে। উক্ত বিধিমালা দু’টির বিধানসমূহ পরিপালন ও সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতিতে আনয়নের সুবিধার্থে বিধান দু’টি বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে, যা http://www.bb.org.bd/aboutus/dept/bfiu/laws_bfiu.php ওয়েবলিংকে পাওয়া যাবে।

০৪। এক্ষণে বর্ণিত বিধিমালা দু’টি সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতিতে আনয়ন এবং এর বিধানসমূহের পরিপালন নিশ্চিত করার জন্য আপনাদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।