Category:

Account Opening Form & KYC Profile of the Banks. Ref: BRPD Circular No. 02 dated 23-Feb-2020.

February 23rd, 2020 by

ব্যাংকসমূহে হিসাব খোলার ফরম ও কেওয়াইসি প্রোফাইল প্রসঙ্গে

ব্যাংকসমূহে হিসাব খোলার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৩০ জুন ২০০৮ তারিখের পত্র নং-এএমএলডি-১(পলিসি)/২০০৮-২৩২৪ ও ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখের বিএফআইইউ সার্কুলার নং-১০ এবং বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট এর ১৬ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখের বিএফআইইউ সার্কুলার লেটার নং-০১ এর প্রতি আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে।
২। উল্লিখিত পত্র, সার্কুলার ও সার্কুলার লেটারের মাধ্যমে তফসিলি ব্যাংকসমূহের জন্য হিসাব খোলার ফরম ও কেওয়াইসি প্রোফাইল সংμান্ত বিভিন্ন নির্দেশনা জারি করা হয়। দেশে তথ্য প্রযুক্তির বিকাশ, আর্থিক ইনফ্রাস্ট্রাকচার উন্নয়ন ও প্রযুক্তির সহায়তায় তথ্য প্রাপ্তির সুযোগ বৃদ্ধির ধারাবাহিকতায় হিসাব খোলার ফরমসমূহকে অধিকতর গ্রাহক-বান্ধব করার লক্ষ্যে তা হালনাগাদকরণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। হালনাগাদকৃত নি¤েœাক্ত ফরমসমূহ আপনাদের অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এতদ্সঙ্গে প্রেরণ করা হলো:
ক) হিসাব খোলার ফরম: ব্যক্তিক হিসাব
খ) হিসাব খোলার ফরম: প্রাতিষ্ঠানিক হিসাব
গ) হিসাব খোলার ফরম: সরকারি/আধা সরকারি/স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের হিসাব
ঘ) হিসাব খোলার ফরম: স্থায়ী আমানত/সঞ্চয়ী স্কিম/বিশেষ স্কিম হিসাব
৩। হিসাবধারীর পেশা ও অর্থের উৎস বিবেচনায় ব্যাংক হিসাবধারীর কেওয়াইসি করার পাশাপাশি ট্রানজেকশন প্রোফাইলও পূরণ করবে এবং হিসাব খোলার ৬(ছয়) মাস পর প্রকৃত লেনদেন বিবেচনায় তা হালনাগাদ করবে। এ ক্ষেত্রে, বিদ্যমান ট্রানজেকশন প্রোফাইল ফরমের গ্রাহক/হিসাব পরিচালনাকারীর ঘোষনা ও স্বাক্ষর প্রদানের অংশ বাদ যাবে। এতদ্ব্যতীত, ট্রানজেকশন প্রোফাইল ও কেওয়াইসি প্রোফাইল সংμান্ত বিদ্যমান নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকবে।
৪। এতদ্সংযুক্ত হিসাব খোলার ফরমে উল্লেখিত তথ্যাদি ব্যাংকের হিসাব খোলার ফরমে অবশ্যই থাকতে হবে; তবে কোন ব্যাংক প্রয়োজনে অতিরিক্ত তথ্যাদি সংযোজন করতে পারবে। ব্যাংকসমূহ তাদের হিসাব সংশ্লিষ্ট শর্তাবলী ফরমের সাথে সংযুক্ত করবে। ফরম বাংলায় বা ইংরেজীতে বা উভয় ভাষায় মুদ্রণ করা যাবে; তবে ফরমে উল্লেখিত বাংলা ও ইংরেজী মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহের সংশ্লিষ্ট নির্দেশনা তদানুযায়ী পরিপালন করতে হবে।
৫। ইসলামী শরিয়াহ্ ভিত্তিক ব্যাংকসমূহ উল্লিখিত ফরমে ব্যবহৃত শব্দ/শব্দগুচ্ছের পরিবর্তে প্রচলিত ও সামঞ্জস্যপূর্ণ ইসলামী শরীয়াহ্ ভিত্তিক শব্দ/শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করতে পারবে।
৬। ফরম মুদ্রণ ও ব্যবহারের ক্ষেত্রে পরিবেশ বান্ধবতার বিষয়টি বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখতে হবে।
৭। হিসাব খোলার হালনাগাদকৃত ফরমসমূহ আগামী ৩০ জুন ২০২০ তারিখের মধ্যে আবশ্যিকভাবে প্রচলন করতে হবে।
৮। ব্যাংক-কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারার আওতায় এ নির্দেশনা জারি করা হলো।
সংযুক্তি: বর্ণনা অনুয়ায়ী।

 

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/brpd/feb232020brpd02.pdf

Deposit of Fund Received under Annual Development Program (ADP) and Operating Budget and Own Fund of Autonomous, Semi- Autonomous Organizations and Government Owned Companies. Ref: BRPD Circular Letter No. 03 dated 06-Feb-2020.

February 6th, 2020 by

Annual Development Program (ADP) এবং পরিচালন বাজেটের
আওতায় প্রাপ্ত অর্থ, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা এবং সরকার
মালিকানাধীন কোম্পানীর নিজস্ব তহবিলের অর্থ আমানত রাখা প্রসঙ্গে।

শিরোনামোক্ত বিষয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয় এর ১৯ জানুয়ারি ২০২০ তারিখের পত্র নং৫৩.০০.০০০০.৩৩১.২২.০০১.২০-১৮ (কপি সংযুক্ত) এর প্রতি আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক উক্ত পত্রে বর্ণিত নির্দেশনা
যথাযথভাবে পরিপালন নিশ্চিত করার জন্য পরামর্শ দেয়া হ’ল।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/brpd/feb062020brpdl03.pdf

Issuance of Guidelines on Electronic Know Your Customer (e-KYC). Ref: BFIU Circular No. 25 dated 08-Jan-2020.

January 8th, 2020 by

Regarding Deposit of Government, Semi-Government, Autonomous and Semi-Autonomous Bodies’ Own Fund or Fund Received under Annual Development Program (ADP). Ref: BRPD Circular Letter No. 08 dated 23-May-2019.

May 23rd, 2019 by

ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী
বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংক ।

Annual Development Program (ADP) এর আওতায় প্রাপ্ত অর্থ এবং
সরকারি, আধা-সরকারি প্রতিষ্ঠান, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়ত্তশাসিত
সংস্থার নিজস্ব তহবিলের অর্থ আমানত রাখা প্রসঙ্গে।

শিরোনামোক্ত বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ এর ২০ মে ২০১৯ তারিখের স্মারক নং-৫৩.০০.০০০০.৩৩১.২২.০০১.১৯-১৫৩ (কপি সংযুক্ত) এর প্রতি আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক উক্ত স্মারকে বর্ণিত নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন নিশ্চিত করার জন্য পরামর্শ দেয়া হ’ল।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/brpd/may232019brpdl08.pdf

Regarding transformation of school banking account into general savings account. Ref: FID Circular Letter No. 02 dated 17-Dec-2018.

December 17th, 2018 by

ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা
বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংক

স্কুল ব্যাংকিং হিসাব সাধারণ সঞ্চয়ী হিসাবে রূপান্তরকরণ প্রসঙ্গে।

২৮ অক্টোবর ২০১৩ তারিখের জিবিসিএসআরডি সার্কুলার নং ঃ ০৭ এবং ২৮ জানুয়ারী ২০১৮ তারিখের এফআইডি সার্কুলার লেটার নং ঃ ০১ এর প্রতি আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে।

স্কুল ব্যাংকিং হিসাবধারী যেসকল শিক্ষার্থীর বয়স ১৮ বছর অতিক্রান্ত হয়েছে তাদের হিসাব হিসাবধারীর সম্মতিক্রমে অতিসত্ত¡র সাধারণ সঞ্চয়ী হিসাবে রূপান্তর করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হলো।

এ প্রেক্ষিতে, ২৮ জানুয়ারী ২০১৮ তারিখের এফআইডি সার্কুলার লেটার নং ঃ ০১ এর সংযুক্তি-খ এর নির্ধারিত ফরমেট অনুযায়ী এতদ্সংক্রান্ত অগ্রগতির তথ্য নিয়মিতভাবে এ বিভাগে প্রেরণের জন্য আপনাদেরকে অনুরোধ জানানো যাচ্ছে।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/finincld/dec172018fidl02.pdf

Policy on Unclaimed Deposits & Valuables. Ref: BRPD Circular No. 10 dated 12-Sep-2018.

September 12th, 2018 by

ব্যবস্থাপনা পরিচালক/প্রধান নির্বাহী
বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলী ব্যাংক।

অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী সম্পর্কিত নীতিমালা প্রসঙ্গে।

ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ (২০১৩ পর্যন্ত সংশোধিত) এর ৩৫ ধারায় ব্যাংকসমূহের অদাবীকৃত আমানত এবং মূল্যবান সামগ্রী সরকারি খাতে জমা করণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদান করার নির্দেশনা রয়েছে। উক্ত আইন অনুযায়ী কোন ব্যাংক কেম্পানীর কোন বাংলাদেশী শাখায় পরিশোধযোগ্য অর্থের (সরকার, নাবালক বা আদালতের অর্থ ব্যতীত) ব্যাপারে ১০ (দশ) বছর পর্যন্ত লেনদেন বা যোগাযোগ করা না হলে সে ধরনের অর্থ, চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিলের পাওনাদার বা পাওনাদারের পক্ষে কোন ব্যক্তিকে এবং মূল্যবান সামগ্রীর আমানতকারীকে ৩ (তিন) মাসের নোটিশ প্রেরণের বিধান রাখা হয়েছে। উল্লিখিত নোটিশ প্রেরণের ৩ (তিন) মাস অতিμান্ত হওয়ার পরেও যদি তার প্রাপ্তি স্বীকার পত্র বা কোন উত্তর না আসে, সেক্ষেত্রে নিয়মানুযায়ী অদাবীকৃত আমানত এবং মূল্যবান সামগ্রী সরকারী খাতে জমা করণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকে প্রদান করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। উক্ত আইনের সুষ্ঠু পরিপালন নিশ্চিতকল্পে নি¤েœাক্ত নীতিমালা অনুসৃত হবে ঃ
০১। গণনা ও নোটিশ প্রদান ঃ (ক) সরকার, নাবালক বা আদালতের অর্থ ব্যতীত অন্য কারো পরিশোধযোগ্য অর্থ (নির্দিষ্ট মেয়াদী ও অন্য কোন আমানত, কোন আমানতের উপর প্রদেয় ডিভিডেন্ড, বোনাস, লাভ বা পরিশোধযোগ্য অন্য কোন অর্থ), পরিশোধযোগ্য চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিল এবং ব্যাংক এর জিম্মায় রক্ষিত মূল্যবান সামগ্রী ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৩৫ ধারার উপ-ধারা (১) এর গণনা অনুসারে গ্রাহক কর্তৃক ১০ (দশ) বছর পর্যন্ত লেনদেন বা যোগাযোগ করা না হলে সে সব অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রী অদাবীকৃত অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রী হিসেবে গণ্য হবে।
(খ) গণনাকৃত অর্থ ও চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিলের পাওনাদারদের পক্ষে কোন ব্যক্তিকে এবং মূল্যবান সামগ্রীর আমানতকারীকে তার দেয়া বা প্রেরিত সর্বশেষ ঠিকানায় প্রেরিত ব্যাংক-কোম্পানীর প্রাপ্তি স্বীকারসহ রেজিষ্ট্রিকৃত ডাকযোগে ৩ (তিন) মাসের লিখিত নোটিশ প্রেরণ করতে হবে। ড্রাফট বা বিনিময় দলিলে পাওনাদারের ঠিকানা পাওয়া না গেলে আবেদনকারীর ঠিকানায় অনুরূপ নোটিশ প্রদান করতে হবে। নোটিশ প্রদানের ক্ষেত্রে উক্ত আইন এর ৩৫ ধারার উপধারা (৩) এ বর্ণিত নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে।
০২। বিবরণী দাখিল ঃ ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৩৫ ধারার উপ-ধারা (১) অনুসারে সময়কাল গণনা করে ১০ (দশ) বছর অতিμান্ত হবার পর যে সব দাবীহীন অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রী অপরিশোধিত, বা ক্ষেত্রমতে, অফেরত অবস্থায় ব্যাংকের নিকট থাকে সে সকল অর্থ বা সামগ্রীর একটি বিবরণী ব্যাংক কর্তৃক প্রত্যেক পঞ্জিকা বছর শেষ হওয়ার পরবর্তী ত্রিশ দিনের মধ্যে নির্ধারিত ফরমে (পরিশিষ্ট-ক) বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগে প্রেরণ করতে হবে।
০৩। অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদান ঃ ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৩৫ ধারার উপ-ধারা (১) অনুসারে নোটিশ প্রেরণের ৩ (তিন) মাস অতিμান্ত হওয়ার পরেও যদি তার প্রাপ্তি স্বীকার পত্র বা কোন উত্তর না আসে, তা হলে উক্ত আইনের উপধারা (২) এর বর্ণনানুযায়ী অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী প্রতি পঞ্জিকা বছরের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদান করতে হবে। এক্ষেত্রে নি¤œরূপ পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে ঃ
(অ) অদাবীকৃত আমানত ঃ (ক) অদাবীকৃত আমানতসমূহ চিহ্নিত করে সুদসহ অর্থ চেক/পে-অর্ডারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদান করতে হবে। এক্ষেত্রে ব্যাংক কোম্পানীসমহের নিকট দেশীয় ম ূ ুদ্রা এবং বৈদেশিক মুদ্রা উভয় ধরনের অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী জমা থাকে। সময়ভেদে বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হারের তারতম্য হওয়ার কারণে অদাবীকৃত বৈদেশিক মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক জমাগ্রহণ, জমাগ্রহণ পরবর্তী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে উত্থাপিত দাবীসমূহ নিষ্পত্তিকরণ এবং দাবী বিহীন আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী সরকারের কাছে ন্যস্ত করার ক্ষেত্রে জটিলতা সৃষ্টি হয়। এ কারণে দেশীয় মুদ্রার আমানত এবং বৈদেশিক মুদার আমানতের অর্থ পৃথকভাবে হিসাবায়ন করে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদান করতে হবে।
(খ) অদাবীকৃত দেশীর মুদ্রার (টাকা) আমানতসমূহের সুদসহ অর্থ টাকায় অংকিত চেক/পে-অর্ডারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিসে জমা প্রদান করতে হবে।
(গ) অদাবীকৃত বৈদেশিক মুদ্রার আমানতের সুদসহ অর্থ বাংলাদেশ ব্যাংক অনমোদিত ৬ (ছয়) টি ু বৈদেশিক মুদ্রায়, যথা- US Dollar ($), Great Briten Pound (£) , Euro ( €), Canadian Dollar (CAD), Japanies Yen (¥) এবং Chinese Yuan Renminbi (CNY) এ অঙ্কিত চেক/পে-অর্ডারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে জমা প্রদান করতে হবে। উল্লিখিত ছয়টি বৈদেশিক মুদ্রা ছাড়া অপরাপর দেশের মুদ্রার ক্ষেত্রে জমাদানের তারিখে ব্যাংক প্রদর্শিত বিনিময় হারে সমমূল্যের USD -তে অঙ্কিত চেক/পে-অর্ডার প্রদান করতে হবে।
(ঘ) অদাবীকৃত আমানতের অর্থ জমা প্রদানের প্রেরণপত্রের ((Forwarding Letter) সাথে নির্ধারিত ছকে (পরিশিষ্ট-খ) তথ্যাদি সংযুক্ত করতে হবে। পত্রের একটি অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগে প্রেরণ করতে হবে।
(আ) অদাবীকৃত চেক, ড্রাফ্ট বা বিনিময় দলিল ঃ (ক) চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিলের ক্ষেত্রে, তা উপস্থাপিত হলে যে পরিমাণ অর্থ, সুদ থাকলে সুদসহ, উক্ত ব্যাংক কর্তৃক প্রদেয় হতো, সে পরিমাণ অর্থ ও সুদ বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা করতে হবে।
(খ) দেশীয় মুদ্রায় অংকিত চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিলের ক্ষেত্রে টাকায় অংকিত চেক/পে-অর্ডারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিসে জমা প্রদান করতে হবে।
(গ) বৈদেশিক মুদ্রায় অংকিত চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিলের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংক অনুমোদিত ৬ (ছয়) টি বৈদেশিক মুদ্রায় অঙ্কিত চেক/পে-অর্ডারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে জমা প্রদান করতে হবে। উল্লিখিত ছয়টি বৈদেশিক মুদ্রা ছাড়া অপরাপর দেশের মুদ্রার ক্ষেত্রে জমাদানের তারিখে প্রদর্শিত বিনিময় হারে সমমল্যের ূ USD -তে অঙ্কিত চেক/পে-অর্ডার প্রদান করতে হবে।
(ঘ) প্রেরণপত্রের ((Forwarding Letter) সাথে নির্ধারিত ছকে (পরিশিষ্ট-গ) তথ্যাদি সংযুক্ত করতে হবে। পত্রের একটি অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগে প্রেরণ করতে হবে।
(ই) অদাবীকৃত মূল্যবান সামগ্রী ঃ (ক) মূল্যবান সামগ্রীর ক্ষেত্রে, যে দেনা, দলিল বা ব্যবস্থাধীনে ব্যাংকের জিম্মায় রক্ষিত আছে সে দেনা, দলিল বা ব্যবস্থার শর্ত মোতাবেক বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিসে জমা প্রদান করতে হবে।
(খ) প্রেরণপত্রের ((Forwarding Letter) সাথে নির্ধারিত ছকে (পরিশিষ্ট-ঘ) তথ্যাদি সংযুক্ত করতে হবে। পত্রের একটি অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগে প্রেরণ করতে হবে।
০৪। তালিকা প্রকাশ ও দলিলাদি সংরক্ষণ ঃ (ক) অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদানের পর বাংলাদেশ ব্যাংকে হস্তান্তরিত অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর তালিকা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃক তাদের ওয়েবসাইটে এবং সরকারী গেজেট ও অন্যূন ২ (দুই) টি পত্রিকায় প্রতি তিন মাসে একবার করে ১ (এক) বছর যাবৎ প্রকাশ করতে হবে।
(খ) ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ধারা-৩৫(৯) অনুযায়ী অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর তালিকা বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে এক বছর ধরে প্রদর্শনের লক্ষ্যে ব্যাংকসমূহ উক্ত বিবরণীর সফটকপি বাংলাদেশ ব্যাংকে নিয়মিত সরবরাহ করবে।
(গ) অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী বাংলাদেশ ব্যাংকে হস্তান্তর করার পর সংশ্লিষ্ট ব্যাংক এ ধরনের হিসাব খোলার আবেদন পত্রে উক্ত হস্তান্তর করার বিষয়টি চিহ্নিত ও সংশ্লিষ্ট তথ্যাদি লিপিবদ্ধ করবে এবং এতদ্সংμান্ত স্বাক্ষর কার্ড, স্বাক্ষরের কর্তৃত্ব সম্পর্কিত দলিল ও অন্যান্য দলিল সংরক্ষণ করবে। বাংলাদেশ ব্যাংক হতে অনুরূপ সংরক্ষণের প্রয়োজন নেই মর্মে না জানানো পর্যন্ত উক্ত দলিলাদি সংরক্ষণ করতে হবে।
০৫। বাংলাদেশ ব্যাংকের নিকট দাবী উত্থাপন ঃ (ক) অদাবীকৃত আমানতের অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রী বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক গৃহীত হওয়ার পর হতে ২ (দুই) বছরের মধ্যে কোন দাবী উত্থাপিত হলে তা ফেরৎ প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃক গ্রাহকের আবেদনμমে প্রয়োজনীয় কাগজাদিসহ (পরিশিষ্ট-ঙ) বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ বরাবর আবেদন করতে হবে।
(খ) দেশীয় মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর ক্ষেত্রে আবেদনপত্রের অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিস এবং বৈদেশিক মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর ক্ষেত্রে আবেদনপত্রের অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা এর ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে প্রেরণ করতে হবে।
(গ) মৃত গ্রাহকের ক্ষেত্রে তার মৃত্যু সনদ জমা প্রদান করতে হবে এবং সেক্ষেত্রে অদাবীকৃত আমানত বা মূল্যবান সামগ্রী ফেরত প্রদানের জন্য নমিনী/নমিনীগণ বা নমিনী মনোনয়ন করা না থাকলে উত্তরাধিকার সনদ অনুযায়ী উপযুক্ত উত্তরাধিকারী/ উত্তরাধিকারীগণ সংশ্লিষ্ট ব্যাংক বরাবরে আবেদন করবে।
০৬। অদাবীকৃত আমানত ও মূল্যবান সামগ্রী সরকারের নিকট হস্তান্তরঃ অদাবীকৃত আমানতের অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রী বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক গৃহীত হওয়ার পর হতে ২ (দুই) বছরের মধ্যে গ্রাহক কর্তৃক উত্থাপিত দাবি মেটানোর পর অবশিষ্ট অর্থ বা সামগ্রী সম্পর্কে যদি আর কোন দাবী উত্থাপন না করা হয় বা কোন পক্ষ হতে বাংলাদেশ ব্যাংককে অবহিত করা না হয় তাহলে উক্ত ২ (দুই) বছর সময় অতিμান্ত হওয়ার পর হতে সে অর্থ বা মূল্যবান সামগ্রীর উপর কারো কোন দাবী থাকবে না এবং তা সরকারের সম্পত্তি হিসেবে গণ্য হবে এবং সরকারের নিকট তা ন্যস্ত করা হবে।
০৭। পরিবর্তন ও পরিমার্জন ঃ ব্যাংক কোম্পানী আইন এর সাথে সামঞ্জস্য রেখে বাংলাদেশ ব্যাংক সময়ে সময়ে প্রয়োজন বোধে নতুন নির্দেশনা/পরামর্শ দিতে পারবে এবং বর্ণিত নীতিমালার পরিবর্তন ও পরিমার্জন করতে পারবে।
এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/brpd/sep122018brpd10.pdf

Guidelines for cash withdrawal through cheque of Illiterate Customer. Ref: BRPD Circular No. 04 dated 21-May-2018.

May 21st, 2018 by

Regarding deposit of Government, Semi – Government, Autonomous and Semi-Autonomous body’s own fund or fund received under Annual Development Program (ADP). Ref: BRPD Circular Letter No. 05 dated 18-Apr-2018.

April 18th, 2018 by

Opening of Bank Accouts for students Under School Banking Guidelines annexure. Ref: FID Circular Letter No. 01 dated 28-Jan-2018.

January 28th, 2018 by

REGARDING BANKING SERVICES FOR STREET URCHIN AND WORKING CHILDREN. REF: FID CIRCULAR LETTER NO. 03 DATED 14.02.2016.

February 14th, 2016 by

পথশিশু ও কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের ব্যাংকিং সেবার আওতায় আনার উদ্দেশ্যে তাদের জন্য এনজিও’র মাধ্যমে ব্যাংক হিসাব খোলার বিষয়ে বিআরপিডি সার্কুলার নং-০৫, তারিখঃ মার্চ ০৯, ২০১৪ এর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে। পথশিশু ও কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের জন্য দ্রুত ও সহজে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার সুবিধার্থে উক্ত সার্কুলারের ৩ নম্বর ক্রমিকে বর্ণিত হিসাব পরিচালনা সংক্রান্ত বিষয়টি পরিবর্ধনপূর্বক নিম্নের নির্দেশনাসমূহ জারী করা হলো ঃ

১) পথশিশু ও কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের পিতামাতা (Biological Parents) থাকলে, সেক্ষেত্রে পিতা ও মাতার মধ্যে যে কোন একজন এবং পথশিশু ও কর্মজীবী শিশু-কিশোরের যৌথ স্বাক্ষরে হিসাবটি পরিচালনা করতে পারবে। উল্লিখিত সার্কুলারের ২ নম্বর ক্রমিকে বর্ণিত পদ্ধতি অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট এনজিও এর মনোনীত প্রতিনিধি সমগ্র বিষয়টি তত্ত্বাবধান করবেন।

২) কোন এনজিও সার্বিকভাবে বা কোন একটি নির্দিষ্ট এলাকায় কার্যক্রম বন্ধ করে দিলে/ প্রজেক্ট এর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে অথবা অন্য কোন কারণে হিসাব পরিচালনা করতে সক্ষম না হলে, পথশিশু/কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের নামে খোলা হিসাব তাদের ইচ্ছানুযায়ী তাদের পিতামাতা (Biological Parents)/অভিভাবক ও পথশিশু/কর্মজীবী শিশু-কিশোরের যৌথ স্বাক্ষরে পরিচালনা করা যাবে। ব্যাংক এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া সম্পাদন করবে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট এনজিও এর আর কোনরূপ দায়বদ্ধতা থাকবে না। পথশিশু/কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের পিতামাতা (ইরড়ষড়মরপধষ চধৎবহঃং)/অভিভাবক না থাকলে হিসাব বন্ধ করে হিসাবের সম্পূর্ণ স্থিতি হিসাবধারী শিশু/কিশোরকে ফেরত প্রদান করতে হবে।

৩) ২ নম্বর ক্রমিকে বর্ণিত কোন কারণে পথশিশু/কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের নামে খোলা হিসাবের সিগনেটরি পরিবর্তন/হিসাব বন্ধ করার উদ্দেশ্যে প্রয়োজনে ব্যাংক এনজিও এর সহায়তা গ্রহণ করবে।

৪) পথশিশু/ কর্মজীবী শিশু-কিশোরদের হিসাব বন্ধের ক্ষেত্রে ব্যাংক ও এনজিও একটি যৌথভাবে স্বাক্ষরিত প্রত্যয়নপত্র সংরক্ষণ করবে। ব্যাংক কর্তৃক এরূপ বন্ধ করে দেয়া হিসাবসমূহের বিবরণী ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে (সংযোজনী-ক) বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশন ডিপার্টমেন্ট এ দাখিল করতে হবে।

 এতদ্সংক্রান্ত উপরোল্লিখিত সার্কুলারের অপরাপর নির্দেশনাগুলো অপরিবর্তিত থাকবে।

Source: https://www.bb.org.bd/mediaroom/circulars/finincld/feb142016fidl03.pdf