REVISED SYSTEM OF ALTERNATIVE CASH INCENTIVE IN LIEU OF BONDED WAREHOUSE/DUTY DRAW BACK FACILITY FOR EXPORT ORIENTED LOCAL TEXTILE SECTOR (INCLUDING HANDLOOM FABRICS). REF: FEPD CIRCULAR NO. 07 DATED 03.06.2003.

০১। উপর্যুক্ত বিষয়ে FEPD CIRCULAR NO. 09 DATED 05.03.2001 এবং FEPD CIRCULAR NO. 10 DATED 05.06.2002 এর প্রতি অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকসমুহের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাইতেছে।

০২। রপ্তানিমুখী দেশীয় বস্ত্রখাতে শুল্ক বন্ড বা ডিউটি ড্র-ব্যাক এর পরিবর্তে বিকল্প নগদ সহায়তা প্রদানের নিমিত্তে অত্র বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত উপরোক্ত সার্কুলারদ্বয় নিম্নোক্তরূপে সংশোধন করা হইলঃ

বিটিএমএ কর্তৃক প্রত্যয়ন সনদ দ্বারা সমর্থিত যে কোন এলসি কিংবা ডকুন্টোরী কালেকশনস এর বিপরীতে পরিশোধ ব্যবস্থা সম্বলিত বিটিএমএ এর সদস্য মিল হইতে সংগৃহীত সুতা দ্বারা উৎপাদিত বস্ত্র বিকল্প নগদ সহায়তার জন্য যোগ্য বিবেচিত হইবে;

কেবলমাত্র ব্যাংকের মাধ্যমে স্থাপিত এলসি এর আওতায় রপ্তানি পরবর্তী পর্যায়ে প্রণীত রপ্তানি দলিলের বিপরীতে প্রত্যাবাসিত রপ্তানি আয় কিংবা রপ্তানি পরবর্তী পর্যায়ে ব্যাংকের মাধ্যমে প্রেরিত ডকুমেন্টারী কালেকশনস এর বিপরীতে প্রত্যাবাসিত রপ্তানি আয়ই বস্ত্রখাতে বিকল্প নগদ সহায়তার জন্য যোগ্য রপ্তানি আয় বিবেচিত হইবে;

বিকল্প নগদ সহায়তা প্রদানের পূর্বে প্রদেয় নগদ সহায়তার সঠিকতার বিষয়ে প্রতিটি কেস বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক নিযুক্ত অডিট ফার্ম দ্বারা নিরীক্ষা করাইয়া লইতে হইবে;

বিকল্প নগদ সহায়তার প্রতিটি আবেদনের সংগে বস্ত্র উৎপাদনে ব্যবহৃত কাঁচামালের মূল্য ও পরিমান এবং রপ্তানিকৃত পন্যের মূল্য ও পরিমানের সঠিকতার বিষয়ে এবং উৎপাদনকারী ইউনিটের উৎপাদন ক্ষমতা সম্পর্কে স্ব স্ব এসোসিয়েশন কর্তক ইস্যুকৃত প্রত্যয়নপত্র ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ইউটিলাইজেশন পারমিট/ডিকারেশন (ইউপি/ইউডি) পরিশিষ্ট-”ক” তে প্রদত্ত নমুনা অনুযায়ী থাকিতে হইবে;

ইপিজেডে গ্রে-ফেব্রিক্স রপ্তানির ক্ষেত্রে নগদ সহায়তা প্রদেয় হইবে না;

নগদ সহায়তা প্রদানকারী ব্যাংক শাখাসমুহ সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের হিসাব বিকলন করিয়া আবেদনপত্রের বিপরীতে অনুমোদিত বিকল্প নগদ সহায়তা পরিশোধ করিবে। প্রতিমাসে ব্যাংক শাখায় সম্পাদিত সকল বিকল্প নগদ সহায়তা পরিশোধের বিবরণী পরবর্তী মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের প্রধান কার্যলয়ের ০৫(পাঁচ) প্রস্থে প্রেরিত হইবে। এই বিবরণীতে নগদ সহায়তা গ্রহনকারী রপ্তানিকারকদের নাম-ঠিকানা, রপ্তানিকৃত পণ্য, পণ্যের পরিমান, রপ্তানি মূল্য, নগদ সহায়তা গ্রহণের পরিমান, ইত্যাদি তথ্য থাকিতে হইবে। ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় সকল শাখার মাসিক পরিশোধ বিবরণীসমূহের একীতুত তথ্য বিবরণীর একটি করিয়া কপি ফরওয়ার্ডিং পত্রসহ পরবর্তী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের ব্যাংক পরিদর্শন বিভাগ-১ (বেসরকারী ব্যাংকের ক্ষেত্রে) ও রাষ্ট্রায়ত্ত বানিজ্যিক ব্যাংকের ক্ষেত্রে ব্যাংক পরিদর্শন বিভাগ-২, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)/সরকার কর্তৃক মনোনীত অডিটর, সংশ্লিষ্ট সমিতি এবং বানিজ্য মন্ত্রনালং বরাবরে নিয়মিতভাবে প্রেরণ করিবে;

ইপিবি কর্তৃক বিকল্প নগদ সহায়তা মনিটর করা হইবে এবং তাহারা একটি ওভারসাইট মেকানিজম প্রবর্তন পূর্বক উহার বাস্তবায়ন করিবে। তবে ইপিবি কর্তৃক ওভারসাইট মেকানিজম বা মনিটরিং ব্যবস্থা প্রবর্তন না করা পর্যন্ত সরকার কর্তৃক মনোনীত অডিটর দ্বারা উক্ত মনিটরিং কার্যক্রম সম্পাদন করা হইবে;

উচ্চ মূল্যের কাপড় (প্রতি মিটার দুই ডলারের উপরে এবং দশ হাজার মিটারের উপরে) রপ্তানির বিপরীতে নগদ সহায়তা দাবীর ক্ষেত্রে ওভারসাইট মেকানিজম বাস্তবায়নকারী সংস্থা (ইপিবি/সরকার কর্তৃক মনোনীত অডিটর) হইতে রপ্তানির পূর্বে সনদ গ্রহণ করিয়া রাখিতে হইবে, অন্যথায় ঐ ক্ষেত্রে নগদ সহায়তা প্রদান করা যাইবে না;

নগদ সহায়তা সরাসরি রপ্তানিকারকের হাতে নগদে না দিয়া ব্যাংকিং ইনস্ট্রুমেন্টের মাধ্যমে প্রদান করিতে হইবে এবং ঋণ সহায়তা প্রদানকারী (মেয়াদী ঋণ, চলতি মুলধন ইত্যাদি) আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঋণ সমন্বয়ের বিষয়কে প্রাধান্য দিতে হইবে;

নগদ সহায়তা অপচয়কারী প্রতিষ্ঠানসমূহের সদস্যপদ সংশ্লিষ্ট সমিতি বাতিল করিবে;

ব্যাংক কর্তৃক নগদ সহায়তা অনিয়মিতভাবে পরিশোধ করা হইলে প্রদত্ত অর্থ বাংলাদেশ ব্যাংকে রতি পরিশোধকারী ব্যাংকের হিসাব বিকলনপূর্বক আদায় করিয়া লওয়া হইবে;

অনিয়মিতভাবে নগদ সহায়তা গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমুহকে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ’কালো’ তালিকাভুক্ত করিবে। ’কালো’ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানসমুহকে অনিয়মিতভাবে প্রদত্ত নগদ সহায়তার অর্থ সংশ্লিষ্ট ব্যাংক পরিশোধলাভকারীর নিকট হইতে আদায় করিয়া বাংলাদেশ ব্যাংকে ফেরত প্রদান করিবে এবং সকল প্রতিষ্ঠানকে ভবিষ্যতে সরকারের পক্ষ হইতে কোনরূপ সহায়তা/ভর্তুকী প্রদান করা যাইবে না;

নগদ সহায়তা অনিয়মিতভাবে পরিশোধের সংগে সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থার কর্মকর্ত/কর্মচারীদের বিরূদ্ধে প্রচলিত বিধি অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাইবে;

নগদ সহায়তা প্রদানের ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র ও মাঝারি প্রতিষ্ঠানসমুহকে (এস এম ই) অগ্রাধিকার দেওয়া যাইতে পারে।

এতদবিষয়ে FEPD CIRCULAR NO. 09 DATED 05.03.2001 এর সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রসমুহে ”ব্যাক-টু-ব্যাক ঋণপত্র” শব্দাবলী ”ঋণপত্র/ডকুমেন্টারী কালেকশনস” শব্দাবলী দ্বারা প্রতিস্থাপিত হইবে। ইহাছাড়া, FEPD CIRCULAR NO. 09 DATED 05.03.2001 এবং FEPD CIRCULAR NO. 10 DATED 05.06.2002 এর অন্যান্য নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকিবে।

সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে ইহা অবহিতকরণের জন্য অনুরোধ জানানো যাইতেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *